Walton Primo RX6 Hands On review

Aug 5 • রিভিউ, স্মার্টফোন • 211 Views • No Comments on Walton Primo RX6 Hands On review

সমসাময়ীক স্মার্টফোন গুলোকে টক্কর দিতে ওয়ালটন নিয়ে এলো জনপ্রিয় RX Series এর ৬ষ্ঠ্য কিস্তি Primo RX6. ১৪,৯৯৯ টাকা মূল্যের স্মার্টফোনটির আকর্ষণীয় সব ফিচার গুলোর জন্য ডিভাইসটি তরুণদের মধ্যে ব্যপক জনপ্রিয় ইতিমধ্যে। আমার রিভিউ এ আমি তুলে ধরবো ডিভাইসটির ডিসপ্লে, র‌্যাম, রম, ক্যামেরা, ব্যাটারি সহ আরো অনক বিষয় নিয়ে। রিভিউ এর শুরুতেই জেনে নেবো Primo RX6 এর উল্ল্যেখযোগ্য ফিচার সমূহ:

ডিভাইসের নাম Primo RX6
ডিসপ্লে: 5.7″ FULL View HD+ IPS Display
প্রোটেকশন  2.75D Curved Glass
র‌্যাম ৩ জিবি
রম ১৬ জিবি ( ১২৮ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে)
সি.পি.ইউ ১.৪৫ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর
জি.পি.ইউ MALI T720
ক্যামেরা রিয়্যার ১৩ মেগাপিক্সেল
ফ্রন্ট ১৬ মেগাপিক্সেল
ব্যাটারি ৩০০০ মিলি এ্যম্পিয়ার
দাম ১৪,৯৯৯ টাকা।

Primo RX6 এর ভালা লাগা ফিচার গুলো:

** ৪জি সাপোর্টেড

** ফিংগার প্রিন্ট সেন্সর

** Android Oreo 8.1,

** 18:9 Full View HD+ Display

** 3000 mAh Battery

** OTG

ডিসপ্লে এবং টাচ

Primo RX6 এ রয়েছে 18:9 ratio 5.7” 2.75D Full View  HD+ IPS Display. ডিসপ্লেতে ২৬ মিলিয়ন কালার সাপোর্ট করে। Display’র রেজুল্যুশন হলো 1440 X 720 PIXEL. ৫ আংগুল পর্যন্ত মাল্টিটাচ সাপোর্ট করে ডিসপ্লেতে। ডিসপ্লে বেশ ব্রাইট এবং জীবন্ত।

র‌্যাম এবং রম

Primo RX6 এ  রয়েছে ৩ জিবি DDR3 র‌্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল মেমোরী।  ইন্টারনাল মেমেরাী ১২৮ জিবি পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যাবে।

সি.পি.ইউ / জি.পি.ইউ

Primo RX6 এ রয়েছে ১.৪৫  গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর এবং Mali T720 GPU.

আনবক্সিং

Primo RX6 এর সাথে রয়েছে:

** একটি Standard Ear phone,

** ইউ এস বি চার্জার উইথ ডাটা কেবল

** ব্যাক কভার

** ওয়্যারেন্টি কার্ড এবং ইউজার ম্যানুয়াল।

** সিম ইজেক্টর।

গেমিং পারফরমেন্স

গেমস খেলার জন্য Primo RX6 বেশ উপযোগী স্মার্টফোন। র‌্যাম, প্রোসেসর বেশি হবার কারণে যে কোন প্রকার গেমস খেলতে পারবেন উইদাউট ডাউট।

আউটলুক

বেশকিছু কালারের সমন্বয়ে তৈরী Primo RX6 সম্পূর্ণ মেটালে তৈরী। ব্যাকপার্ট-টি শাইনি এবং কার্ভ। বেশ এ্যলিগেন্ট একটা ভাব অটোমেটিক্যালি চলে আসে এর ডিজাইনের কারণে।

ডিভাইসটির ফ্রন্ট প্যানেলে রয়েছ 2.75D Curved 5.7” HD+ ডিসপ্লে। সেলফি তোলার জন্য রয়েছ ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ক্যামেরার পাশে রয়েছ নোটিফিকেশন লাইট, প্রক্সিমিটি সেন্সর এবং ফ্ল্যাশ লাইট।

ভলিউম রকার্স এবং পাওয়ার বাটন রয়েছে ডিভাইসের উপরের দিকে ডান পাশে।

3.5 MM Audio পোর্ট রয়েছে উপরের দিকে। এছাড়া ইউ.এস.বি চার্জিং পোর্ট রয়েছে ডিভাইসের নিচের অংশে।

ডিভাইসের পেছনে রয়েছে BSI Sensor যুক্ত ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ফিংগার প্রিন্ট সেন্সর রয়েছে ক্যামেরার ঠিক নিচেই।

সিম কার্ড+Micro SD Slot রয়েছে ডিভাইসটির বাম পাশে। পাওয়ার কনজাম্পশনের জন্য রয়েছ ৩০০০ মিলি এ্যম্পিয়ার লি-পলিমার ব্যাটারি।

ইউজার ইন্টারফেস

Primo RX6 এ ইউজ করা হয়েছে ষ্টক এ্যন্ড্রয়েড ৮.১ এর ইউজার ইন্টারফেস।

অপারেটিং সিস্টেম

Primo RX6 রয়েছে 8.1 Oreo অপারেটিং সিস্টেম।

ক্যামেরা

Primo RX6 এর ক্যামেরা কোয়ালিটি সমসাময়ীক ডিভাইস গুলোর মধ্যে কম্পিটিটিভ। সেলফি তোলার জন্য রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। এছাড়া রিয়্যার প্যানেলে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরায়। ক্যামেরায় PDAF সহ আরো রয়েছে Pro Mode এ ছবি তোলার সুবিধা।

ক্যামেরা ফিচার গুলো দেখে নিন।

ক্যামেরা কোয়ালিটি আমার কাছে ভালো লেগেছে।

কানেক্টিভিটি এবং সেন্সর

Primo RX6 এ যে সকল সেন্সর রয়েছে তা হলো:

Accelerometer (3D), Proximity, GPS ইত্যাদি।
Primo RX6 এ যে সকল কানেক্টিভিটি রয়েছে: WI-FI, Bluetooth V4, Micro USB 2.0, OTG, OTA, WLAN Hotspot ইত্যাদি।

স্পেশাল ফিচার

Face ID:

Finger Print দিয়ে যদি আনলক করতে বিরক্ত হন তো রয়েছে জনপ্রিয় আনলক সিস্টেম ফেস আইডি।

** নোটিফিকেশন লাইট:

এই ফিচারটি কিন্তু বেশ উপকারী। ফোন সাইলেন্ট অবস্থায় কোন কল আসলে বা ম্যাসেজ আসলে নোটিফিকেশন লাইট জ্বলতে থাকবে।

** Split Screen:

এক সাথে একাধিক কাজ করার জন্য রয়েছে Split Screen Option যার মাধ্যমে একাধিক এ্যপস একি সাথে কাজ করতে পারবেন।

** Smart Gesture:

Display Off থাকা অবস্থায় বিভিন্ন সাইনের মাধ্যমে এ্যপস অন করার সুবিধা রয়েছে।

বেঞ্চমার্ক স্কোর

Primo RX6 এ আমরা এ্যনটুটু এবং গিকবেঞ্চ টেষ্ট করেছি আমি।  চলুন স্কোর- গুলো দেখে নেই।

দাম

Primo RX6 এর বাজার মূল্য রাখা হয়েছে ১৪,৯৯৯ টাকা। আমার কাছে পার্সোনালী এই বাজেটে এর চেয়ে ভালো স্মার্টফোন চোখে পরেনা।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

« »