Walton Primo F7s Hands On Review in Bangla!

Mar 31 • রিভিউ, স্মার্টফোন • 303 Views • No Comments on Walton Primo F7s Hands On Review in Bangla!

Walton F সিরিজের আন্ডারে আরেকটি লো-বাজেটের বেসিক কনফিগারেশনের স্মার্টফোন বাজারে ছেড়েছে, যার নাম Walton Primo F7s। এই স্মার্টফোনটির বর্তমান মূল্য ৫ হাজার টাকার আশে পাশে। এটি সাধারনত একটি এন্ট্রি লেভেল ইউজারদের ডিভাইস হিসেবেই পরিচিতি পাবে কেননা আপনারা শুধু মাত্র বেসিক কাজ গুলো চালিয়ে নিতে পারেবেন এই ফোনটি দিয়ে।

ডিসপ্লে ৫.২ ইঞ্চি এফ ডব্লিউভিজিএ ডিসপ্লে (৮৫৪*৪৮০)
অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৭ নোগাট
প্রসেসর  ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর
র‌্যাম   ১ জিবি
ইন্টারনাল স্টোরেজ/ রোম ৮  জিবি
জিপিউ ৪০০
মেমোরী কার্ড স্লট সর্বোচ্চ ৬৪ জিবি পর্যন্ত
 রেয়ার  ক্যামেরা ৫   মেগাপিক্সেল
ফ্রন্ট  ক্যামেরা ৫ মেগাপিক্সেল
সিম সাপোর্ট ১ ন্যানো সিম+ ১ ন্যানো সিম
ব্যাটারী ২২৫০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারী
মূল্য ৫২২৯ টাকা

 


Walton Primo F7s মেড ইন বাংলাদেশ ট্যাগ নিয়ে বাজারে হাজির হয়েছে। এজ অল ওয়েজ আমরা সবাই মোটামোটি জানি এন্ট্রি লেভেলের ডিভাইসগুলো বিল্ড কোয়ালিটির দিকেই সব সময় একটু বেশি নজর দিয়ে থাকে, এবার ও এর ব্যাতিক্রম কিছুই করে নি ওয়াল্টন।

যেহেতু ডিভাইসটি লো-বাজেরটের সেহেতু প্রথমে এর বিল্ড কোয়ালটি আর ডিজাইন নিয়েই শুরু করা যাক, যদিও Walton Primo F7s, Primo F7 এর জমজ ভাই তবুও এদের ডিজাইনের দিকে কোনো মিল পাওয়া গেলো না আগের ভার্সন আই মিন Primo F7 থেকে F7s এর ডিজাইন অনেকটা আপগ্রেড করা হয়েছে, যা এক কথায় আপনাকে প্রিমিয়াম ফিল দিবে।

ব্যাক পার্টি প্লাস্টিকের হলেও ম্যাট ফিনিশিং দেয়া হয়েছে, সাইড এডজ গুলো কার্ভড হওয়ার ফলে ভালো গ্রিপ তো অবশ্যই পাবেন আর যেহেতু ম্যাট ফিনিশিং দেয়া সেহেতু ফিঙ্গার প্রিন্ট পড়বে না আর সেই সাথে ব্যাকপার্টি নন রিমুভেবল ও বটে। ব্যাকপার্টের উপর, নিচে ২ পাশেই লিনিয়ার টেক্সচার দেয়া হয়েছে, যার ফলে দেখতে কিন্তু খারাপ লাগছে না।

এই স্মার্টফোন্টির লুক একেবারেই বেসিক লেভেলের সেই সাথে অন্যান্য সব স্মার্টফোনের তুলনায় একটু ওয়েট মনে হয়েছে আমার কাছে। স্মার্টফোনটি রেগুলার সাইজ তাই ইজিলি অপারেট করতে পারবেন।


ব্যাকপার্টের উপরে বাম পাশে আছে ক্যামেরা, ফ্ল্যাশ লাইট, ডান পাশে আছে ভলিউম রকার এবং পাওয়ার বাটন, বামপাশে আছে সিম ও মাইক্রো এসডি স্লট, উপরে আছে ইউএসবি পোর্ট এবং নিচে আছে স্পিকার এবং অডিওপোর্ট।

ফ্রন্ট প্যানেলের উপরে আছে ফ্রন্ট ফ্ল্যাশ,ইয়ার পিস, 5 mega pixel এর ফ্রন্ট ক্যামেরা এবং সেন্সরস এবং নিচে আছে নেচিগেশন বাটন যেটি একেবারেই লাইট ফ্রি ।

তো সব মিলিয়ে বিল্ড কোয়ালিটি বাজেট অনুযায়ী বেশ ভালো মনে হয়েছে আমার কাছে আশা করা আপনাদের কাছেও ভালো লাগবে। ডিভাইসটি বাজারে ২ টি কালারে পাওয়া যাবে ব্ল্যাক আর গোল্ডেন।

Walton Primo F7s এ 5.2 inch এর FWVGA ডিস্পলে ব্যবহার করা হয়েছে যা Primo F7 থেকে কিছুটা বড় । অর্থাৎ এটি একটি মিড বা রেগুলার সাইজ এর ডিভাইস ।

ডিস্পলে টির কালার রিপ্রডাকশন,শার্প্নেস মোটামোটি । যেকোনো মিডিয়া বা গেমস এর ক্ষেত্রে ডিটেইলস average ছিলো average । এর রেজুলেশন 854*480p এবং ডিস্পলেটি 16.7 million color supported ।এর টাচ রেস্পন্স মোটামুটি । এর মধ্যে এইচডি ভিডিও গুলো কোনো সমস্যা ছাড়াই প্লে করতে পারবেন।


ভিডিও এর কালার,কন্ট্রাস্ট এবং ডিটেইলস average ছিলো তবে ভিউইং আংগেল তেমন একটা ভালো ছিলো না, আপনি চাইলে ডিস্পলে এর কালার টোন আরো কিছুটা ইম্পুরভ করতে পারবেন মিরাভিশনের মাধ্যমে । বড় ডিসপ্লে থাকার ফলে গেইমিং ও ভিডিও এক্সপিরিয়েন্স দারুন হবে।

এর হার্ডওয়্যার সেকশনের দিকে তাকালে দেখা যাবে এতে, 1.3 GHz এর কোয়াড কোর প্রসেসর এবং Mali 400 এর GPU থাকছে । র‌্যাম পাবেন ১ জিবি এবং রম ৮ জিবি। তবে এক্সপেন্ডেবল মেমোরি হিসেবে সর্বোচ্চ ৬৪ জিবি পর্যন্ত ব্যবহার করার সুযোগ থাকছে। 1 জিবি র‌্যাম দিয়ে আপনি নরমালি কাজ গুলো চালিয়ে নিতে পারবেন।

রেগুলার ইউজে তেমন কোনো সমস্যা হবে না, তবে মাঝে মাঝে টাইপিঙ্গের সময় কিছুটা লেটেন্সি খেয়াল করলাম , বেশ কিছু মিড এবং নরমাল গ্রাফিক্স এর গেমস ভালো ভাবে খেলতে পারবেন । তেমন হিটিং আপ ইস্যু ছিলো না।

মিড গ্রাফিক্স গেমে আমি খুব বেশি ল্যাগ পাইনি। গেইমিং এক্সপিরিয়েন্স বাজেট অনুযায়ী ভালো ই ছিলো।

এর ফ্রন্ট এবং রেয়ার দুটোতেই BSI sensor যুক্ত ৫ মেগাপিক্সেল এর ক্যামেরা থাকছে। যেহেতু এতে বি এস আই সেন্সর থাকছে সেহেতু এটি দিয়ে লো লাইট এ তুলোনামূলক ভাবে ভালো ছবি তোলা যাবে। তবে লো-লাইটের ছবি গুলোতে নয়েজ পাবেন।

ক্যামেরা ইউয়াইটি কাস্টমাইজড। কমন সকল ফিচার্স যেমন- কালার ইফেক্ট,এইচ ডি আর , ফেস বিউটির পাশাপাশি ,পানারোমা এবং থাকছে প্রফেশনাল মোড, ও বিভিন্ন ফিল্টার।

ডিভাস্টি দিয়ে আপনি মোটামোটি মানের ছবি তুলতে পারবেন । ডে লাইট এর ছবি গুলো ভালো ছিলো । ডিটেইলস ভালো ছিলো বাট কালার ও শার্প্নেস মোটামোটি । ফোকাস এতোটা একুরেট না ও ফোকাস করতে সামান্য কিছু টাইম নেয় । ফ্রন্ট ক্যামেরা দিয়েও আপনি সেইম লেভেল এর সেলফি নিতে পারবেন।

 

Accelerometer (3D), Gravity (3D), Proximity, Light সেন্সর গুলো পাবেন এর স্মার্টফোনটিতে।

 

Walton Primo F7s ডিভাইসটি Android Nougat 7.0 তে রান করছে। ইউআই স্টক Android এর মতোই। এপ্স ট্রাঞ্জিশন মোটামুটি স্মুদ ছিলো। তবে মাঝে মাঝে ইউয়াইতেও কিছুটা ল্যাগ দেখেছি।

OTA থাকায় ছোটোখাটো আপডেট আসলে পেয়ে যাবেন । সব শেষে চলে আসি এর ব্যাটারি সেকশনে এতে ২২৫০ মিলি এম্পিয়ারের একটি ননরিমুভাল ব্যাটারি পাবে।

এটি দিয়ে নরমালি আপনি ৪ থেকে ৫ঘন্টার মতো ব্যাটারি ব্যাকাপ পাবেন আর হাই ইউজে ৩ থেকে ৪ ঘন্টার কাছাকাছি ব্যাকাপ পাবেন । তো এন্ট্রি লেভেল ইউজারদের কাছে এটা মানান সই মনে হবে।

সব শেষে একটি কথা বলার ই অপেক্ষা থাকে বাজেট অনুযায়ী এর ইউজার এক্সপিরিয়েন্স ভালো ই ছিলো। যেহেতু এটি এন্ট্রি লেভেল এর ডিভাইস সে ক্ষেত্রে এর দারা একেবারে সুপার স্পেক্স আশা করা উচিৎ হবে না ।

তবে ডিসপ্লে ও ব্যাটারি পার্ফোম্যান্স স্লাইটিলি ইমপ্রুভ হলে ভালো হতো, বাজেটের কথা চিন্তা করলে এটি একটি ডিসেন্ট স্মার্টফোন এই বাজেট রেঞ্জের মধ্য। যাই হোক দিন শেষ ডিসিশন নেবার পালা কেবল আপনার ই, আর আমি এটি সাজেষ্ট করার কারন একটাই দেশিয় পন্য ব্যাবহারের শান্তি ই আলাদা।

ভিউয়ার্স আজ এ পর্যন্ত ই সামনে নতুন নতুন কি কি স্মার্টফোনের রিভিউ  চান এবং রিভিউটি  নিয়ে যদি আপনার কোনো মতামত থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্টস বক্সে এ জানাতে ভুলবেন না, এ সপ্তাহেই লেটেস্ট স্মার্টফোনের রিভিউ নিয়ে হাজির হরিভিউবো আপনাদে সামনে ইন-শা আল্লাহ্‌। সেই পর্যন্ত আশা করি সবাই ভালো থাকবেন, আল্লাহ্‌ হাফেজ ।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

« »