Trending

ওয়ালটন প্রিমো আর ফাইভ প্লাস হ্যান্ডস অন রিভিউ (PRIMO R5+)

Feb 4 • রিভিউ, স্মার্টফোন • 83 Views • No Comments on ওয়ালটন প্রিমো আর ফাইভ প্লাস হ্যান্ডস অন রিভিউ (PRIMO R5+)

বাজারে আসলো ওয়ালটনের আরো একটি ৪জি স্মার্টফোন ওয়ালটন প্রিমো আর ফাইভ প্লাস। দারুন ডিজাইন, স্পেসিফিকেশন আর সুলভ মূল্যের এই স্মার্টফোনটি ইতিমধ্যেই ক্রেতাদের মধ্যে হাইপ তৈরী করতে সক্ষম হয়েছে।

৫.৭২” ডিসপ্লে, ৩ জিবি র‌্যাম যুক্ত স্মার্টফোনটিতে আরো রয়েছে ৩০০০ মিলি এ্যম্পিয়ার ব্যাটারি।

চলুন বিলম্ব না করে শুরু করে দেই ওয়ালটন প্রিমো আর ফাইভ প্লাস এর বিস্তারিত হ্যান্ডস অন রিভিউ। ততক্ষন আমার সাথেই থাকুন।

আউট অব দ্য বক্স:

  • প্রিমো আর ফাইভ ফ্লাস হ্যান্ডসেট
  • ইউ.এস.বি কেবল
  • ব্যাক কভার
  • অ্যাডাপটার
  • ইয়ারফোন
  • ডিসপ্লে প্রোটেক্টর
  • ওয়্যারেন্টি কার্ড
  • সেইফটি ইন্সট্রাকশন

একনজরে প্রিমো আর৫ প্লাস

  • ফোরজি সাপোর্টেড
  • ৫.৭২ ইঞ্চি ফুল ভিউ এইচডি আইপিএস ১৮:৯ রেশিও ডিসপ্লে
  • ২.৫ডি কার্ভড গ্লাস
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ অরিও অপারেটিং সিস্টেম
  • ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড-কোর প্রসেসর
  • ৩ জিবি ডিডিআর থ্রী র‍্যাম; ১৬ জিবি রম
  • রিয়ারে বিএসআই সেন্সর যুক্ত ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সাথে এলইডি ফ্ল্যাশ
  • ফ্রন্টে বিএসআই ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর
  • ৩০০০ এমএএইচ লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি
  • ওটিজিসাপোর্টেড

ডিসপ্লে এবং টাচ

প্রিমো আর ফাইভ প্লাস এ রয়েছে ৫.৭২ ইঞ্চি এইচ.ডি+ ফুল ভিউ ডিসপ্লে। ডিসপ্লে’র রেজুল্যুশন হলো ১৪৪০*৭২০ পিক্সেল।  ডিভাইসটিতে রয়েছে বর্তমান সময়ের তুমুল জনপ্রিয় ১৮:৯ ডিসপ্লে আসপেক্ট রেশিও। ডিসপ্লের ডে-লাইট ভিজিবিলিটি বেশ ভালো। টাচ নিয়ে কোন প্রবলেম পাইনি।

ইউজার ইন্টারফেস

প্রিমো আর ফাইভ প্লাস এ রয়েছে এ্যন্ড্রয়েড ৮.১.০ অপারেটিং সিস্টেম।  ইউজার ইন্টারফেইস কিছুই অপটিমাইজড করা হয়েছে ইউজারদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে।

আউটলুক

প্রিমো আর ফাইভ প্লাস প্লাষ্টিক মেইড হলেও  গ্লসি ফিনিশিং ডিভাইসটিকে আরো প্রিমিয়াম করে তুলেছে। ডিভাইসটির প্রস্থ্য ৭২.১৮ মিলিমিটার, দৈর্ঘ্য ১৫২.৪ মিলিমিটার আর ডিভাইসটির পুরুত্ব মাত্র ৮.৩ মিলিমিটার। ব্যাটারি সহ এই ডিভাইসটির ওজন ১৪৫ গ্রাম মাত্র।

র‌্যাম এবং রম

ডিভাইসটিতে রয়েছে ৩ জিবি র‌্যাম। এছাড়া ইন্টারনাল মেমোরী রয়েছে ১৬ জিবি যা ১২৮ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবো।

সি.পি.ইউ এবং জি.পি.ইউ

প্রিমো আর ফাইভ প্লাস এ ব্যবহার করা হয়েছে ১.৩ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর। এছাড়া গেমিং এবং ভিডিও’র জন্য রয়েছে ‘পাওয়ার ভিআর রোগ জি.ই৮১০০’ জি.পি.ইউ।

বেঞ্চমার্ক 

আমরা ডিভাইসটির বেঞ্চমার্ক টেষ্ট করেছি। ডিভাইসটির এ্যনটুটু এবং গিক বেঞ্চ স্কোর আপ টু দ্যা মার্ক বলা যায়। স্কোর গুলো দেখে নিন।

গেমিং

প্রিমো আর ফাইভ প্লাস ডিভাইসটিতে পাবজি, নিড ফর স্পিড- মোস্ট ওয়ান্টেড, এসফাল্ট ৯, কল অফ ডিউটি গেমস গুলো ইজিলি খেলতে পেরেছি। তবে পাবজি একটু বেশি সময় নিয়ে খেললে ডিভাইসটি একটু গরম হয়ে যাবে। তবে সব মোবাইল-ই তুলনামুলক গরম হয়ে থাকে গেইমস খেললে।

ক্যামেরা

ডিভাইসটির রিয়ার প্যানেলে রয়েছে বি.এস.আই সেন্সর যুক্ত ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ক্যামেরায় আরো রয়েছে পাওয়ারফুল এল.ই.ডি ফ্ল্যাশ লাইট। রিয়্যার ক্যামেরা দিয়ে ফুল এইচ.ডি ভিডিও রেকর্ডিং করা যায়।

সেলফি তোলার জন্য রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সফ্ট ফ্ল্যাশ লাইট।

ক্যামেরা ফিচার গুলো দেখে নিন।

কানেক্টিভিটি

৪জি সাপোর্টেড প্রিমো আর ফাইভ প্লাস এ ২জি এবং ৩জিও সাপোর্ট করে। এছাড়া ডিভাইসটিতে ওয়াইফাই, ব্লুটূথ ভার্সন ৪, ও.টি.জি এবং ডব্লিউ ল্যান হটস্পট সুবিধা।

মাল্টিমিডিয়া

ফুল এইচ.ডি ভিডিও রেকর্ডিং+প্লে-ব্যাক, রেকর্ডিং সহ এফ.এম রেডিও সুবিধা পাবেন ডিভাইসটিতে।

সিকিউরিটি

ফেইস আনলক থাকার কারণে ডিভাইসটির সিকিউরিটি অনেক টাইট। আর ১৩ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা থাকার ফলে ফেস আনলক খুব ভালভাবেই কাজ করে। এছাড়া ব্যাক প্যানেলে রয়েছে ফাস্ট ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।

ব্যাটারি

প্রিমো আর ফাইভ প্লাস ডিভাইসটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৩০০০ মিলি এ্যম্পিয়ার ব্যাটারি।

মূল্য:

প্রিমো আর ফাইভ প্লাস এর বাজার মূল্য রাখা হয়েছে ১০,৯৯৯ টাক।

মন্তব্য:

দামের কথা চিন্তা করলে বাজারে প্রচলিত বিভিন্ন স্মার্টফোনের সাথে প্রিমো আর ফাইভ প্লাসের তুলনা করতে পারেন। আমার বিবেচনায় ওয়ালটন প্রিমো আর ফাইভ প্লাস আপনাকে বেষ্ট স্পেক অফার করবে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

« »